ADS বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন: [email protected]

অপেক্ষার অবসান, আবারও মুখোমুখি হবে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তানে, দেখে নিন এশিয়া কাপের পূর্ণাঙ্গ সময় সূচি

অপেক্ষার অবসান, আবারও মুখোমুখি হবে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তানে, দেখে নিন এশিয়া কাপের পূর্ণাঙ্গ সময় সূচি

[ad_1]

আসন্ন এশিয়া কাপে দিনক্ষণ ঘোষণা করল ACC। ২৭ অগাস্ট থেকে শুরু হবে টুর্নামেন্ট। প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি আয়োজক শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তান।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে ম্যাচ রয়েছে ঠিক তার পরের দিন অর্থাৎ ২৮ অগাস্ট। দুবাইতে আয়োজিত হবে ম্যাচ। এশিয়া কাপ শেষ হবে ১১ সেপ্টেম্বর।

BCCI সচিব জয় শাহ টুইটে লেখেন, “অপেক্ষা অবশেষে শেষ হল। এশিয়ান দলের মধ্যে লড়াই শুরু হবে ২৭ অগাস্ট আর ১১ সেপ্টেম্বর হবে গুরুত্বপূর্ণ ফাইনাল। এশিয়া কাপের এই ১৫ তম বছরটা খুব গুরুত্বপূর্ণ ICC টি-২০ বিশ্বকাপের জন্য।”

এবার এশিয়া কাপের আয়োজক শ্রীলঙ্কা। কিন্তু সেদেশের অস্থিরতার জন্য তা অনুষ্ঠিত হবে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে। মোট দুটো গ্রুপে এবার রাখা হয়েছে দলগুলোকে। গ্রুপ A ও গ্রুপ B। এরমধ্যে ভারত, পাকিস্তান রয়েছে গ্রুপ A -তে। এরসঙ্গে আরও একটি দল যোগ হবে যারা কোয়ালিফাই করবে। অন্যদিকে গ্রুপ B-তে রয়েছে শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান।

২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে গ্রুপ স্তরের ম্যাচ। প্রতি গ্রুপ থেকে শীর্ষে থাকা দুটো দল কোয়ালিফাই করবে সুপার ফোরে। তাদের মধ্যে শীর্ষে থাকা দুটো দল খেলবে ফাইনাল। দুটো ভেনুতেই হবে ম্য়াচ।

দুবাই ও শারজা। উদ্বোধনী ম্যাচ, ভারত পাকিস্তান ও ফাইনালের মত গুরুত্বপূর্ণ ম্য়াচ আয়োজনের দায়িত্ব পেয়েছে দুবাই। দুবাইতে মোট আয়োজিত হবে ১০টা ম্যাচ।

আর শারজায় হবে তিনটে ম্যাচ। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ২৮ অগাস্ট খেলার পর ৩১ অগাস্ট মাঠে নামবে ভারত। মুখোমুখি হবে কোয়ালিফাই করা দলের বিরুদ্ধে।

শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত শ্রীলঙ্কা চেষ্টা করেছিল এশিয়া কাপ আয়োজন করতে। কিন্তু তারা তা করতে ব্যর্থ হয়েছে। সময় যত গড়িয়েছে শ্রীলঙ্কার পরিস্থিতি খারাপ হয়েছে।

দ্বিপাক্ষিক সিরিজ আয়োজন করতে পারলেও টুর্নামেন্ট আয়োজনের ঝুঁকি নিতে চায়নি তারা। এ প্রসঙ্গে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের প্রধান সাম্মি সিলভা বলেন, “আমরা আমাদের এশিয়ার প্রতিবেশিদের নিয়ে এশিয়া কাপ আয়োজন করতে মুখিয়ে আছি।

আমরা ACC-র সিদ্ধান্তের সঙ্গে একমত। বর্তমান পরিস্তিতিতে আমাদের UAE-তে এশিয়া কাপ আয়োজন উচিত ছিল। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট ACC ও এমরিটেস ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে কাজ করবে এশিয়া কাপকে স্মরণীয় করে তুলতে।”



[ad_2]

Leave a Reply