ADS বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন: [email protected]

অবাক ক্রিকেট বিশ্ব, ভারত-পাকিস্তান মহারণে ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ হলেন ক্যামেরা ম্যান!

অবাক ক্রিকেট বিশ্ব, ভারত-পাকিস্তান মহারণে ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ হলেন ক্যামেরা ম্যান!

[ad_1]

ভারত পাকিস্তান ম্য়াচে ক্রিকেটীয় উত্তেজনার পাশাপাশি থাকে একাধিক অক্রিকেটীয় জিনিস। যারমধ্যে গুরুত্বপূর্ণ সমর্থকরা। ম্যাচ দেখতে দুই দলের সমর্থকরা ভিড় করেন মাঠে। কেউ জার্সিতে তাক লাগান তো কেউ প্ল্যাকার্ড, ফেস্টুনে তাক লাগান।

তবে কিছু সমর্থক রয়েছেন যারা রূপ দিয়ে তাক লাগান। রূপে তোমায় ভোলাব নাকি গান দিয়ে দ্বার খোলাব এটাই চলতে থাকে তখন। ফলে ক্যামেরাম্যানদের ম্যাচ কভারের পাশাপাশি ব্যস্ত থাকতে হয় গ্যালারিতে থাকা সুন্দরীদের ক্যামেরাবন্দী করতে। ভারত-পাকিস্তান মহারণে ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ হলেন ক্যামেরা ম্যান!

এবার সেটাই তাঁরা করলেন স্মার্টলি। দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে আলো করে বসে থাকা ভারত পাকিস্তান ম্য়াচকে অন্যমাত্রায় নিয়ে গেলেন সেখানে উপস্থিত থাকা সুন্দরীরা। যা দেখে মুগ্ধ নেটিজেনরা।

ভারত ম্যাচ হেরেছে। এশিয়া কাপের প্রথম ম্যাচে ভারত জিতেছিল ৫ উইকেটে আর সুপার ফোরের ম্যাচ হারল পাঁচ উইকেটে। তবে ম্যাচ হয়েছে হাড্ডাহাড্ডি। শেষ বল পর্যন্ত চলেছে লড়াই।

ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ রান করে বিরাট কোহলি। ও পাকিস্তানের হয়ে সর্বোচ্চ রান করেন মহম্মদ রিজওয়ান। দুই দলই একাধিক ফিল্ডিং মিস করেছে। তবে সবকিছুর ঊর্ধ্বে উঠেছেন সমর্থকরা। বা বলা ভালো সুন্দরী সমর্থকরা।

টুইটারে এক সমর্থক লেখেন, “ক্যামেরাম্য়ান দারুণ কাজ করছেন।” এক ব্যক্তি, ঊর্বশীর হাসি মুখের ছবি দিয়ে পোস্ট করেন। লেখেন, “ঋষভ পন্থ মাঠে আছেন আর ঊর্বশী হাসছেন। দারুণ কাজ।” অপর ব্যক্তি লেখেন, “ক্যামেরাম্যানরা জিতে গেল আজ।” ফলে এই ম্যাচে প্লেয়ারদের পাশাপাশি আলোচনায় চলে এলেন মিস্ট্রি গার্লরা।

তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রশংসার পাশাপাশি নিন্দাও হয়েছে। আর নিন্দার মুুখে ঊর্বশী। আজ ঋষভ ব্যাট হাতে নিয়ে মাঠ ছাড়তে না ছাড়তেই সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে উঠে আসেন ঊর্বশী রাউতেলা।

অনেকেই একথা বলতে শুরু করেন যে ঊর্বশী মাঠে আসার জন্যই ঋষভ নাকি ভালো পারফরম্যান্স করতে পারেননি। কেউ কেউ তো আবার এই অভিযোগও করেছেন, মাঠে এসে ঊর্বশী নাকি তুক-তাক করেছেন। আর সেকারণেই এভাবে আউট হয়ে গেলেন ঋষভ পন্থ। ব্যাপারটি নিয়ে ইতিমধ্যেই নেট পাড়া সরগরম হয়ে উঠেছে।

এই ম্যাচে দুই দলই একাধিক ফিল্ডিং মিস করে। ফলে একাধিক রান বেরিয়ে যায়। নিশ্চিত আউট নষ্ট হয়। একবার আউট নিয়ে বিতর্ক হয়। যদিও সেটি যায় পাকিস্তানের পক্ষে। তবে সব মিলিয়ে হাড্ডাহাড্ডি ম্যাচ উপহার দেওয়া হয়েছে দর্শকদের।

[ad_2]

Leave a Reply