ADS বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন: [email protected]

এই খারাপ সময়ে এই ব্যাক্তিটি আমাকে অনুপ্রেরণা দিয়েছেন, সাবেক সতীর্থকে নিয়ে আবেগ ঘন বার্তা বিরাট কোহলির

এই খারাপ সময়ে এই ব্যাক্তিটি আমাকে অনুপ্রেরণা দিয়েছেন, সাবেক সতীর্থকে নিয়ে আবেগ ঘন বার্তা বিরাট কোহলির

[ad_1]

গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের অধিনায়কত্ব ছেড়ে দিয়েছিলেন বিরাট কোহলি। তখন টি-টোয়েন্টির পাশাপাশি ওয়ানডের অধিনায়কত্বও কেড়ে নেওয়া হয় কোহলির কাছ থেকে। দুই ফরম্যাটেই অধিনায়কত্ব দেওয়া হয় রোহিত শর্মাকে।

এরপর দক্ষিণ আফ্রিকা গিয়ে টেস্ট সিরিজ হারের পর টেস্টের অধিনায়কত্বও ছেড়ে দেন কোহলি। ফলে তিন ফরম্যাটেই দায়িত্ব পান রোহিত। অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেওয়া বা হারানোর পর গত ছয় থেকে আট মাস সময়টা খুবই কঠিন ছিল কোহলির জন্য।

তিনি মানসিকভাবে এতোটাই বিপর্যস্ত অবস্থায় ছিলেন যে, এশিয়া কাপ শুরুর আগে প্রায় এক মাস ক্রিকেট ব্যাট ছুঁয়েও দেখেননি। এমনকি আশপাশে কাছের মানুষ সবাই থাকলেও মানসিক বিষণ্ণতায় ভুগেছেন কোহলি। এই খারাপ সময়ে সাবেক সতীর্থদের মধ্যে শুধুমাত্র মহেন্দ্র সিং ধোনিকে পাশে পেয়েছেন সময়ের অন্যতম সেরা এই ব্যাটার।

রোববার এশিয়া কাপের সুপার ফোরের ম্যাচে শ্বাসরুদ্ধকর লড়াইয়ের পর পাকিস্তানের কাছে হেরেছে ভারত। দলের হয়ে টানা দ্বিতীয় ফিফটিতে ৬০ রানের ইনিংস খেলেছেন কোহলি। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে দলের অবস্থার পাশাপাশি নিজের সাম্প্রতিক সময় নিয়েও কথা বলেছেন তিনি।

টেস্ট অধিনায়কত্ব ছাড়ার পর ঘটনাক্রম সম্পর্কে কোহলি বলেন, ‘একটি বিষয় আমি বলতে পারি, যখন টেস্ট অধিনায়কত্ব ছেড়ে দিলাম, তখন আমার সাবেক সতীর্থদের মধ্যে শুধুমাত্র একজনের কাছ থেকেই বার্তা পেয়েছি- এমএস ধোনি।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘অনেকের কাছেই আমার নম্বর রয়েছে। তাদের মধ্যে অনেকেই টিভিতে অনেক পরামর্শমূলক কথাবার্তা বলেছে। কিন্তু যাদের কাছে আমার নাম্বার রয়েছে, তাদের কারও কাছ থেকে একটি মেসেজও পাইনি।’

ধোনির সঙ্গে সম্পর্কের রসায়নের বিষয়টি উল্লেখ করে কোহলি বলেন, ‘যখন কারও সঙ্গে সম্পর্কে শ্রদ্ধা থাকে ও সম্পর্ক খাটি হয়, তখন এটি এমন দেখায়। কারণ দুই প্রান্তেই নিশ্চয়তা আছে। আমরা দুজনের কেউই কাউকে নিয়ে সংশয়ে ভুগি না।’

‘আমি বলতে চাচ্ছি, যখন কাউকে কিছু বলতে চাচ্ছি, যদি সত্যিই সাহায্য করার ইচ্ছা থাকে তাহলে তাকে ব্যক্তিগতভাবে বলবো। যদি আপনি সারা দুনিয়ার সামনে কোনো পরামর্শ দেন, তাহলে আমার কাছে এটির কোনো মূল্য নেই। সেই কথায় যদি আমার ভালো হওয়ারই থাকে, তাহলে সেটি নিজেদের মধ্যেই বলা সম্ভব।’

[ad_2]

Leave a Reply