ADS বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন: [email protected]

কোহলির সেঞ্চুরিতে সমর্থকদের রোষানলে বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ

কোহলির সেঞ্চুরিতে সমর্থকদের রোষানলে বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ

[ad_1]

২০২১ সালের টি-২০ ক্রিকেট বিশ্বকাপে একেবারে জঘন্য পারফরম্যান্স করে ভারতীয় ক্রিকেট দল। টুর্নামেন্ট থেকে দেশে ফেরার পরেই বিরাট কোহলি আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়ে দেন যে তিনি আর টি-২০ ক্রিকেটে ভারতীয় ক্রিকেট দলকে নেতৃত্ব দেবেন না।

বিরাটের সেই ফাঁকা সিংহাসনে প্রথমে বসানো হয় রোহিত শর্মাকে। তারপর সপ্তাহ ঘুরতে না ঘুরতেই একদিনের ক্রিকেট দলের নেতৃত্বও বিরাটের কাছ থেকে কেড়ে নেওয়া হয়।

মাঝখানে সময় কেটে গিয়েছে ২ বছর ৯ মাস ১৬ দিন। অবশেষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আবারও শতরানের সরণীতে ফিরেছেন বিরাট কোহলি। এই নিয়ে বিরাটের ঝুলিতে মোট ৭১টি শতরান জমা হল। সেইসঙ্গে এতদিন ধরে তাঁকে নিয়ে যে সমালোচনা চলছিল,

সেই আগুনেও খানিকটা জলের ছিটে পড়ল। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন নেটপাড়ায় কোহলির প্রশংসায় বিরাট বন্যা বইতে শুরু হয়েছে। সকলের মুখে শুধুমাত্র একটাই কথা – কিং ইজ ব্যাক।

সামনেই টি-২০ ক্রিকেট বিশ্বকাপ। তার আগে কিং কোহলির এই শতরান ভারতীয় ক্রিকেট দলকে যে বাড়তি অক্সিজেন দেবে, তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। তবে বিরাট কোহলির এই শতরানের পরই নেট পাড়ায় ভারতীয় ক্রিকেট সমর্থকদের রোষানলে পড়েছেন টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন অধিনায়ক তথা বর্তমান বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

এই ঘটনাটি বোঝার জন্য আপনাকে কিছুটা হলেও ফ্ল্যাশব্যাকে ফিরতে হবে। ২০২১ সালের টি-২০ ক্রিকেট বিশ্বকাপে একেবারে জঘন্য পারফরম্যান্স করে ভারতীয় ক্রিকেট দল।

টুর্নামেন্ট থেকে দেশে ফেরার পরেই বিরাট কোহলি আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়ে দেন যে তিনি আর টি-২০ ক্রিকেটে ভারতীয় ক্রিকেট দলকে নেতৃত্ব দেবেন না। বিরাটের সেই ফাঁকা সিংহাসনে প্রথমে বসানো হয় রোহিত শর্মাকে। তারপর সপ্তাহ ঘুরতে না ঘুরতেই একদিনের ক্রিকেট দলের নেতৃত্বও বিরাটের কাছ থেকে কেড়ে নেওয়া হয়।

বলা হয়, টিম ম্যানেজমেন্ট সীমিত ওভারের ক্রিকেটে স্প্লিট ক্যাপ্টেন্সি চাইছে না। সেকারণে একদিনের ক্রিকেট দলের অধিনায়কত্বও পাকাপাকিভাবে রোহিতের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

তবে অনেকেই মনে করেন যে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের অঙ্গুলিহেলন ছাড়া ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষে কখনই এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা সহজ ছিল না। আর বৃহস্পতিবার রাতে যখন বিরাট কোহলির ব্যাট থেকে সেই কাঙ্খিত শতরানটা বেরিয়ে এল,

তখন ভারতীয় ক্রিকেট দলের সমর্থকেরা সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কেও কথা শোনাতে ছাড়লেন না। একাধিক টুইটে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের বর্তমান সভাপতির বিরুদ্ধে নিজেদের ক্ষোভ প্রকাশ করলেন।

আমান গুপ্তা নামে একজন ইউজার কটাক্ষের সুরে বললেন, ‘ একমাত্র সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ই বিচক্ষণ মানুষ যিনি বুঝতে পেরেছিলেন বিরাট কোহলির থেকে অধিনায়কত্ব কেড়ে নিলেই শতরান করতে পারবেন।’ যোগী ভাট নামে একজন ইউজার আবার বললেন,

‘বিরাট কোহলি এবং আর্শদীপের সমালোচনা যাঁরা করেন তাঁরা হয় সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় নয়ত বা পাকিস্তানি।’ বালাজি জে নামে একজন আবার লিখেছেন, ‘কিং ইজ ব্যাক। মিস্টার গাঙ্গুলি, মিস্টার সুনীল গাভাসকার এবার অন্তত আপনারা নিজেদের মুখটা বন্ধ রাখুন।

বরাবরের মতোই অসাধারণ বিরাট কোহলি।’ বিরাজ গাধভি নামে একজন ইউজার আবার লিখেছেন, ‘সৌরভ গাঙ্গুলি দাদা। আপনিই বলেছিলেন বিরাটের নিজের জন্য রান করা উচিত।

একজন ক্রিকেটার হিসেবে আপনাকে যে সম্মান আমি করতাম, বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট হিসেবে তা আর নেই। ভারতের অন্যতম সেরা ক্রিকেট অধিনায়কের সঙ্গে এমন নোংরা রাজনীতি! লজ্জা লাগা দরকার।

[ad_2]

Leave a Reply