ADS বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন: [email protected]

ধ্বংসস্তূপ মাঝে দাঁড়িয়ে জাড্ডু ও হার্দিকের ভয়ংকর ব্যাটিংয়ে পাকিস্তানকে কাঁদিয়ে বড় জয় তুলে নিল ভারত

ধ্বংসস্তূপ মাঝে দাঁড়িয়ে জাড্ডু ও হার্দিকের ভয়ংকর ব্যাটিংয়ে পাকিস্তানকে কাঁদিয়ে বড় জয় তুলে নিল ভারত

[ad_1]

গতবছর দুবাই ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামে টি-২০ বিশ্বকাপের ম্যাচে পাকিস্তানের কাছে হারতে হয়েছিল ভারতকে। বছর ঘুরে সেই একই মাঠে এবার এশিয়া কাপের ম্যাচে সম্মুখসমরে দু’দল।

স্বাভাবিকভাবেই বদলা নেওয়ার সুবর্ণ সুযোগ টিম ইন্ডিয়ার সামনে। যদিও শুধু পাকিস্তান ম্যাচ জেতার লক্ষ্য নিয়েই নয়, রোহিত শর্মাদের এশিয়া কাপ অভিযান শুরু খেতাব ধরে রাখার উদ্দেশ্যেও। সেই লড়াইয়ে শুরুতেই কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে টিম ইন্ডিয়া।

লোকেশ রাহুলকে সঙ্গে নিয়ে ওপেন করতে নামেন রোহিত শর্মা। বোলিং শুরু করেন নাসিম শাহ। প্রথম বলে ১ রান নিয়ে খাতা খোলেন রোহিত।প্রথম ওভারে নাসিম শাহর দ্বিতীয় বলে ব্যাটের কানা লাগিয়ে বোল্ড হন লোকেশ রাহুল।

গোল্ডেন ডাকে মাঠ ছাড়েন লোকেশ। ভারত ১ রানে ১ উইকেট হারায়। ব্যাট করতে নামেন কেরিয়ারের শততম টি-২০ ম্যাচে মাঠে নামা বিরাট কোহলি।

প্রথম ওভারে নাসিমের চতুর্থ বলে স্লিপে কোহলির ক্যাচ ছাড়েন ফখর জামান। খাতা খোলার আগেই জীবনদান পেলেন বিরাট। প্রথম ওভারে ৩ রান ওঠে। ১টি উইকেট হারায় ভারত।

দ্বিতীয় ওভারে শাহনওয়াজ দাহানির পঞ্চম বলে দৃষ্টিনন্দন পুল শটে বাউন্ডারি মারেন কোহলি। ২ ওভারে ভারতের স্কোর ১ উইকেটে ১০ রান। কোহলি ৮ ও রোহিত ১ রানে ব্যাট করছেন।

তৃতীয় ওভারে পুনরায় বল করতে আসেন নাসিম শাহ। ৫ রান ওঠে ওভারে। ৩ ওভারে ভারতের স্কোর ১ উইকেটে ১৫ রান। কোহলি ১২ রানে ব্যাট করছেন।

চতুর্থ ওভারে হ্যারিস রউফের পঞ্চম বলে ছক্কা মারেন কোহলি। যদিও বল বিরাটের যথাযথ ব্যাটে লাগেনি। ওভারে মোট ৮ রান ওঠে। ৪ ওভারে টিম ইন্ডিয়ার স্কোর ১ উইকেটে ২৩ রান। বিরাট ১৮ বলে ১৯ রানে ব্যাট করছেন।

পঞ্চম ওভারে দাহানির চতুর্থ বলে আত্মিবশ্বাসী শটে বাউন্ডারি মারেন কোহলি। ওভারে মোট ৬ রান ওঠে। ৫ ওভার শেষে টিম ইন্ডিয়ার স্কোর ১ উইকেটে ২৯ রান। কোহলি ২১ বলে ২৪ রান করেছেন।

পাওয়ার প্লে-র ৬ ওভারে ভারত ১ উইকেট হারিয়ে ৩৮ রান সংগ্রহ করেছে। ষষ্ঠ ওভারে হ্যারিস রউফের বলে একটি দুর্দান্ত চার মারেন কোহলি। তিনি ৩টি চার ও ১টি ছক্কার সাহায্যে ২৪ বলে ২৯ রান করেছেন। রোহিত ১১ বলে ৪ রান করেছেন।

৭.৪ ওভারে মহম্মদ নওয়াজের বলে ছক্কা হাঁকিয়ে ভারতকে ৫০ রানে পৌঁছে দেন রোহিত শর্মা। সেই ওভারের শেষ বলে ফের ছক্কা হাঁকানোর চেষ্টায় বাউন্ডারি লাইনে ইফতিকারের হাতে ধরা পড়েন হিটম্যান। তিনি ১৮ বলে ১২ রান করে মাঠ ছাড়েন। ভারত ৫০ রানে ২ উইকেট হারায়। ব্যাট করতে নামেন রবীন্দ্র জাদেজা।

অষ্টম ওভারের শেষ বলে রোহিতের উইকেট নিয়েছিলেন নওয়াজ। দশম ওভারে পুনরায় বল করতে এসে তিনি প্রথম বলেই ফিরিয়ে দেন কোহলিকে। সুতরাং পরপর ২ বলে তিনি রোহিত ও কোহলির উইকেট তুলে নেন। বিরাট হালকা হাতে বল হাওয়ায় ভাসিয়ে ইফতিকারকে ক্যাচ দেন।

তিনি ৩টি চার ও ১টি ছক্কার সাহায্যে ৩৪ বলে ৩৫ রান করেন। ভারত ৫৩ রানে ৩ উইকেট হারায়। ব্যাট করতে নামেন সূর্যকুমার যাদব। ওভারের চতুর্থ বলে ছক্কা মারেন জাদেজা। ১০ ওভারে ভারতের স্কোর ৩ উইকেটে ৬২ রান। শেষ ১০ ওভারে জয়ের জন্য টিম ইন্ডিয়ার দরকার ৮৬ রান।

১২ ওভার শেষে ভারতের স্কোর ৩ উইকেটে ৭৭ রান। জয়ের জন্য শেষ ৮ ওভারে টিম ইন্ডিয়ার দরকার ৭১ রান। রবীন্দ্র জাদেজা ১টি চার ও ১টি ছক্কার সাহায্যে ৯ বলে ১৫ রান করেছেন। ১০ বলে ১০ রান করেছেন সূর্যকুমার। তিনি ১টি চার মেরেছেন।

জয়ের জন্য শেষ ৬ ওভারে টিম ইন্ডিয়ার দরকার ৫৯ রান। অর্থাৎ ওভার প্রতি প্রায় ১০ রান করে দরকার টিম ইন্ডিয়ার। ১৪ ওভারে ভারতের স্কোর ৩ উইকেটে ৮৯ রান।

১৪.২ ওভারে নাসিম শাহর বলে বোল্ড হয়ে মাঠ ছাড়েন সূর্যকুমার যাদব। ১টি বাউন্ডারির সাহায্যে ১৮ বলে ১৮ রান করেন যাদব। ভারত ৮৯ রানে ৪ উইকেট হারায়।

ব্যাট করতে নামেন হার্দিক পান্ডিয়া। ১৫ ওভার শেষে টিম ইন্ডিয়ার স্কোর ৪ উইকেটে ৯৭ রান। জয়ের জন্য শেষ ৫ ওভারে ৫১ রান দরকার ভারতের। জাদেজা ১৯ ও হার্দিক ৭ রানে ব্যাট করছেন।

১৬ ওভার শেষে টিম ইন্ডিয়ার স্কোর ৪ উইকেটে ১০৭ রান। জয়ের জন্য ৪ ওভারে ভারতের দরকার ৪১ রান। জাদেজা ১৯ বলে ২২ রান করেছেন। হার্দিক ৬ বলে ১১ রান করেছেন।

জয়ের জন্য শেষ ৩ ওভারে ভারতের দরকার ৩২ রান। ১৭ ওভারে টিম ইন্ডিয়ার সংগ্রহ ৪ উইকেটে ১১৬ রান। জাদেজা ২১ বলে ২৪ রান করেছেন। ১০ বলে ১৪ রান করেছেন হার্দিক পান্ডিয়া। শেষ ২ ওভারে ভারত কোনও বাউন্ডারি মারেনি।

পায়ে চোট পেয়েছেন। তা সত্ত্বেও বোলিং চালিয়ে যান নাসিম শাহ। কার্যত খোঁড়াতে খোঁড়াতেই রবীন্দ্র জাদেজার উইকেট তুলে নিয়েছিলেন প্রায়। ১৭.৪ ওভারে আম্পায়ার এলবিডব্লিউ দেন জাদেজাকে। রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান জাদেজা। ঠিক পরের বলেই ছক্কা হাঁকান রবীন্দ্র।

১৮ ওভার শেষে টিম ইন্ডিয়ার স্কোর ৪ উইকেটে ১২৭ রান। জয়ের জন্য শেষ ২ ওভারে ২১ রান প্রয়োজন ভারতের। জাদেজা ২৭ বলে ৩৪ রান করেছেন। তিনি ২টি চার ও ২টি ছক্কা মেরেছেন। হার্দিক ১০ বলে ১৪ রান করেছেন। তিনি ১টি চার মেরেছেন।

১৯তম ওভারে হ্যারিস রউফের বলে ৩টি চার মারেন হার্দিক পান্ডিয়া। ওভারে ১৪ রান ওঠে। ১৯ ওভারে টিম ইন্ডিয়ার স্কোর ৪ উইকেটে ১৪১ রান। জয়ের জন্য শেষ ওভারে ভারতের দরকার ৭ রান।

১৯.১ ওভারে নওয়াজের বলে বোল্ড হয়ে মাঠ ছাড়েন রবীন্দ্র জাদেজা। ২টি চার ও ২টি ছক্কার সাহায্যে ২৯ বলে ৩৫ রান করে মাঠ ছাড়েন তিনি। ভারত ১৪১ রানে ৫ উইকেট হারায়। ব্যাট করতে নামেন দীনেশ কার্তিক। নওয়াজের এটি ম্যাচে তৃতীয় উইকেট।

১৯.৪ ওভারে নওয়াজের বলে ছক্কা হাঁকিয়ে ভারতকে জয় এনে দেন হার্দিক পান্ডিয়া। পাকিস্তানের ১৪৭ রানের জবাবে ব্যাট করেত নেমে ভারত ২ বল বাকি থাকতে ৫ উইকেটের বিনিময়ে জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় ১৪৮ রান তুলে নেয়।

হার্দিক পান্ডিয়া ৪টি চার ও ১টি ছক্কার সাহায্যে ১৭ বলে ৩৩ রান করে নট-আউট থাকেন। ১ বলে ১ রান করেন দীনেশ কার্তিক।

[ad_2]

Leave a Reply