ADS বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন: [email protected]

পন্থের চরম ব্যর্থতার রাতে ধোনির জাদুস্পর্শের স্মৃতিচারণা সোশ্যাল মিডিয়ায়

পন্থের চরম ব্যর্থতার রাতে ধোনির জাদুস্পর্শের স্মৃতিচারণা সোশ্যাল মিডিয়ায়

[ad_1]

ভারত-শ্রীলঙ্কা ম্যাচের শেষ ওভারে শ্রীলঙ্কার জয়ের জন্য দরকার ছিল সাত রান। তরুণ পেসার অর্শদীপ সিংয়ের কাঁধে ছিল গুরুদায়িত্ব। পঞ্জাব পুত্তরের হাত থেকে সব বিষাক্ত ইয়র্কার বেরিয়ে আসছিল। দাসুন শনাকার দলের ফিনিশিং লাইন পার করা কার্যত কঠিন হয়ে পড়ছিল ক্রমেই।

রুদ্ধশ্বাস শেষ ওভার! দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচ ছিল ফিফটি-ফিফটি, কিন্তু ঋষভ পন্থের একটা ভুলে ভারতের শেষ হাসিটা হাসা হয়নি। এশিয়া কাপে সুপার ফোরের ম্যাচে শ্রীলঙ্কার কাছে ৬ উইকেটের লজ্জাজনক হার হজম করতে হয়েছে রোহিত শর্মাদের। ম্যাচের শেষ ওভারে ভারতের তরুণ উইকেটকিপার-ব্যাটার ঋষভ পন্থের ব্যর্থতা নিয়েও জোর চর্চা চলছে। আর ঠিক তখনই সোশ্যাল মিডিয়া স্মৃতিচারণ করল কিংবদন্তি এমএস ধোনির ।

ভারত-শ্রীলঙ্কা ম্যাচের শেষ ওভারে শ্রীলঙ্কার জয়ের জন্য দরকার ছিল সাত রান। তরুণ পেসার অর্শদীপ সিংয়ের কাঁধে ছিল গুরুদায়িত্ব। পঞ্জাব পুত্তরের হাত থেকে সব বিষাক্ত ইয়র্কার বেরিয়ে আসছিল। দাসুন শনাকার দলের ফিনিশিং লাইন পার করা কার্যত কঠিন হয়ে পড়ছিল ক্রমেই। শ্রীলঙ্কার জয়ের জন্য শেষ দু’বলে বাকি ছিল দু’রান। ভারত ফিল্ডিংয়ে পরিবর্তন নিয়ে আসেন। থার্ড ম্যানের সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয় ডিপ ফাইন লেগ।

অর্শদীপের পঞ্চম বলটি দাসুন ফস্কান। বল চলে যায় সোজা পন্থের হাতে। যদিও দাসুন খানিক ইতস্তত হয়েই দৌড় শুরু করেন। পন্থের সামনে ছিল সুবর্ণ সুযোগ। তাঁর চোখের সামনে তিনটি স্টাম্প জ্বলজ্বল করছিল। এমনকী হাতে ছিল পর্যাপ্ত সময়ও। কিন্তু ভারতের তরুণ উইকেটকিপার-ব্যাটার ঠান্ডা মাথায় স্টাম্পে বলই মারতে পারলেন না। পন্থের পথ ধরলেন অর্শদীপও। বল ধরে তিনি নন স্ট্রাইকার এন্ডের স্টাম্প ভাঙতে পারেননি। বাই-এ দু’রান নিয়ে শ্রীলঙ্কা ভারতের স্বপ্ন ভেঙে দেয়।

পন্থের ব্যর্থতার রাতেই সোশ্যাল মিডিয়া ফিরে গেল ২০১৬ টি-২০ বিশ্বকাপে। বেঙ্গালুরুর এম চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে ভারত খেলছিল বাংলাদেশের বিরুদ্ধে। বাংলাদেশের শেষ বলে জয়ের জন্য দুই রান বাকি ছিল। ধোনি জানতেন যে, তাঁকে রানআউট করতে হতে পারে। আগেই খুলে ফেলেছিলেন কিপিং গ্লাভস। বিদ্যুৎ গতিতে ছুটে এসে উইকেট ভেঙে ভারতকে ম্যাচ জেতান তিনি। ধোনি ভক্তরা আজও সেই মুহূর্ত ভুলতে পারেননি।



[ad_2]

Leave a Reply