ADS বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন: [email protected]

শ্রীলঙ্কার পতাকা হাতে মাঠেই গম্ভীরের সেলিব্রেশন! সোশ্যাল মিডিয়ায় ধেয়ে এল সুনামি

শ্রীলঙ্কার পতাকা হাতে মাঠেই গম্ভীরের সেলিব্রেশন! সোশ্যাল মিডিয়ায় ধেয়ে এল সুনামি

[ad_1]

প্রতিবেশী রাষ্ট্রের জয়ের পর নিজের আবেগ ধরে রাখতে পারেননি গৌতম গম্ভীর। ভারতের প্রাক্তন বিশ্বকাপ জয়ী ওপেনারকে এই টুর্নামেন্টে ধারাভাষ্যকার ও ক্রিকেট পণ্ডিত হিসাবেই পাওয়া গিয়েছে। শ্রীলঙ্কার সমর্থকদের সামনে গিয়ে তাঁদের দেশের পতাকা হাতে তুলে ধরে দেখান।

দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এশিয়া কাপ ফাইনালে শেষ হাসি হেসেছে দাসুন শনাকার শ্রীলঙ্কা। গত রবিবার দাসুন অ্যান্ড কোং বাবর আজমের পাকিস্তানকে ২৩ রানে হারিয়ে মাথায় তুলেছে এশিয়ার সেরা দলের মুকুট।

এই নিয়ে ছ’বার এশিয়া সেরা হল দ্বীপরাষ্ট্রের ক্রিকেট টিম। ১৯৮৬, ১৯৯৭, ২০০৪, ২০০৮ ও ২০১৪ সালের পর ফের চ্যাম্পিয়ন হয়েছে শ্রীলঙ্কা। প্রতিবেশী রাষ্ট্রের জয়ের পর নিজের আবেগ ধরে রাখতে পারেননি গৌতম গম্ভীর । ভারতের প্রাক্তন বিশ্বকাপ জয়ী ওপেনারকে এই টুর্নামেন্টে ধারাভাষ্যকার ও ক্রিকেট পণ্ডিত হিসাবেই পাওয়া গিয়েছে। এশিয়া কাপ ফাইনালের পর মাঠে নেমে গম্ভীর শ্রীলঙ্কার সমর্থকদের সামনে গিয়ে তাঁদের দেশের পতাকা হাতে তুলে ধরে দেখান।

গম্ভীর নিজেই এই ঘটনার ভিডিয়ো ট্যুইটারে শেয়ার করেছেন। এর সঙ্গে ক্যাপশনে গম্ভীর লিখেছেন, ‘সুপারস্টার টিম…সত্যিকারের জয়ের দাবিদার!!’ এর সঙ্গেই গম্ভীর হ্যাশট্যাগ দিয়ে জুড়ে দিয়েছেন ‘শুভেচ্ছা শ্রীলঙ্কা’।

গম্ভীরের এহেন আচরণের পর সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিক্রিয়ার সুনামি উঠে গিয়েছে। কারণ গম্ভীর সোশ্যাল মিডিয়ায় অত্যন্ত সক্রিয়। ভারতকে বিঁধে পাকিস্তানি কোনও ক্রিকেটার কোনও মন্তব্য করলে, গম্ভীর স্টেপআউট করে তা মাঠের বাইরে পাঠান। গম্ভীরের দেশভক্তিও সর্বজনবিদিত। পাকিস্তানকে শ্রীলঙ্কা হারানোতেই কি গম্ভীর এই পরিমাণ খুশি হয়েছেন? এই প্রশ্নও উঠছে নেটদুনিয়ায়। যদিও অধিকাংশই মনে করছেন, এহেন আচরণে গম্ভীর ফের একবার বিশ্বের জয় করে নিয়েছেন।



[ad_2]

Leave a Reply