ADS বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন: [email protected]

সুপার ফোরের পরপর দুই ম্যাচ হেরেও এই সমীকরণে ফাইনাল খেলবে ভারত

সুপার ফোরের পরপর দুই ম্যাচ হেরেও এই সমীকরণে ফাইনাল খেলবে ভারত

[ad_1]

পাকিস্তানের পর শ্রীলঙ্কার কাছেও হারল ভারত। গ্রুপ পর্বে ভাল শুরু করেও সুপার ফোর পর্বে ছন্দহীন রোহিত শর্মারা। প্রথম একাদশ নির্বাচন নিয়েও উঠছে প্রশ্ন। রোহিত রান পেলেও আবার ব্যর্থ বিরাট কোহলী। ভারতের ১৭৩ রানের জবাবে শ্রীলঙ্কা ১৯.৫ ওভারে ৪ উইকেটে করল ১৭৪ রান।

শ্রীলঙ্কার সামনে জয়ের জন্য ১৭৪ রানের লক্ষ্য রাখে ভারত। জবাবে আগ্রাসী মেজাজেই শুরু করেন শ্রীলঙ্কার দুই ওপেনার পাথুম নিশঙ্ক এবং কুশল মেন্ডিস। ভারতের কোনও বোলারই তাঁদের আগ্রাসী ব্যাটিং থামাতে পারলেন না। পাওয়ার প্লের ছয় ওভারে তাঁরা তোলেন ৫৭ রান।

শ্রীলঙ্কার দুই ওপেনারের সামনে কার্যত অসহায় দেখিয়েছে অধিনায়ক রোহিতকেও। প্রথম উইকেটের জুটিতেই শ্রীলঙ্কা ১১.১ ওভারে ৯৭ রান তুলে নেয়। নিশঙ্ক ৩৭ বলে ৫২ রান করে যুজবেন্দ্র চহালের বলে আউট হলে প্রথম ধাক্কা খায় শ্রীলঙ্কা। তাঁর ইনিংসে রয়েছে চারটি চার এবং দু’টি ছয়।

দু’বল পরেই চহাল সাজঘরে ফেরালেন চরিথ আসালঙ্কা (শূন্য)। পর পর দুই উইকেট হারিয়ে খানিকটা চাপে পড়ে যায় শ্রীলঙ্কা। সেই চার আরও বাড়ে চার নম্বরে নামা গুণতিলকাও (এক) ব্যর্থ হওয়ায়। তাঁকে আউট করেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। বিনা উইকেটে ৯৭ থেকে তিন উইকেটে ১১০ হয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। এর পরেই চহালের বলে আউট হলেন মেন্ডিসও।

তিনি চারটি চার এবং তিনটি ছয়ের সাহায্যে করলেন ৩৭ বলে ৫৭। চহালই মূলত ভারতকে ল়ড়াইয়ে ফেরালেন। ৩৪ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিলেন তিনি। উইকেটের অন্য প্রান্ত থেকে তাঁকে সাহায্য করলেন অশ্বিন।

চাপের মুখে শ্রীলঙ্কার ইনিংস টানলেন অধিনায়ক দাসুন শনাকা এবং ভানুকা রাজাপক্ষ। তাঁরাই শেষ পর্যন্ত জয় এনে দিলেন শ্রীলঙ্কাকে। শেষ পর্যন্ত রাজাপক্ষ ২৫ এবং শনাকা ৩৩ রানে অপরাজিত থাকলেন। রাজাপক্ষ মারলেন দু’টি ছয়। শনাকার ব্যাট থেকে এল চারটি চার এবং একটি ছয়।

এশিয়া কাপের সুপার ফোর-এ ভারত ও শ্রীলঙ্কা দু’টি করে ম্যাচ খেলে ফেলেছে। অন্য দিকে পাকিস্তান ও আফগানিস্তান খেলেছে একটি করে ম্যাচ। ভারত-শ্রীলঙ্কা ম্যাচের পরে পয়েন্ট তালিকায় কে কোথায় দাঁড়িয়ে দেখে নেওয়া য়াক।

পর পর দু’ম্যাচ জিতে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে শ্রীলঙ্কা। প্রথমে আফগানিস্তান ও তার পর ভারতকে হারিয়েছে তারা। দু’ম্যাচ খেলে শ্রীলঙ্কার পয়েন্ট ৪।

তাদের নেট রানরেট +০.৩৫১। অন্য দিকে পর পর দু’ম্যাচ হেরে পয়েন্ট তালিকায় তিন নম্বরেই রয়েছে ভারত। দু’ম্যাচ খেলে রোহিত শর্মাদের পয়েন্ট শূন্য। নেট রানরেট -০.১২৫।

আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতকে শুধু পরের ম্যাচে জিতলেই হবে না। পাকিস্তানকেও হারতে হবে শেষ দু’টি ম্যাচ। তা হলে শ্রীলঙ্কার পয়েন্ট হবে ছয়। ভারত, পাকিস্তান এবং আফগানিস্তানের পয়েন্ট হবে দুই। নেট রান রেটের ভিত্তিতে ফাইনালে যাওয়ার সুযোগ থাকবে রোহিতদের সামনে।

[ad_2]

Leave a Reply