ADS বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন: [email protected]

৩ বিশ্বসেরা ক্রিকেটার যারা দল থেকে বাদ পড়ার পরেও নাটকীয় ভাবে ভারতীয় দলে ফিরে এসেছেন!!

৩ বিশ্বসেরা ক্রিকেটার যারা দল থেকে বাদ পড়ার পরেও নাটকীয় ভাবে ভারতীয় দলে ফিরে এসেছেন!!

[ad_1]

প্রতিটি খেলাতেই খেলোয়াড়কে কঠোর পরিশ্রম এবং অনুশীলনের মধ্যে দিয়ে নিয়ম পালন করতে হয়। ক্রিকেট হলো এমন একটি খেলা যেখানে পরিশ্রম এবং অনুশীলনের পাশাপাশি প্রত্যেক ক্রিকেটার নিজেকে ফিট রাখতেও সদা সচেতন থাকে।

প্রত্যেক ক্রিকেটার চায় তারা আন্তর্জাতিক মঞ্চে সুযোগ পাবার পর দীর্ঘ্য সময় ধরে নিজেদের ক্রিকেট কেরিয়ার এগিয়ে নিয়ে যাবার জন্য কিন্তু তাদের ক্রমাগত খারাপ পারফর্মেন্স এবং চোটের আঘাতের জন্য এমন বহু ক্রিকেটার আছে যারা খুব অল্প সময়ের মধ্যেই ক্রিকেট কেরিয়ার থেকে অবসর গ্রহণ করে ফেলেছেন। চোট থেকে ফিরে এসে ক্রিকেটাররা নিজেদের সেই চেনা ছন্দ পেতে বেশ কিছু সময় অতিক্রম করে এমনটাও ক্রিকেট ইতিহাসে বহুবার আমরা দেখেছি।

ক্রমাগত খারাপ ফর্ম এবং চোট আঘাতে জর্জরিত ক্রিকেটারদের তালিকা খুব একটা ছোট নয়। আবার আমরা এমন ক্রিকেটারদের দেখেছি যারা দলগত কারণে দল থেকে ছিটকে গিয়েছেন। একবার জাতীয় দল থেকে বাদ পড়লে দলে ফেরা কতটা কঠিন সেটা প্রত্যেক ক্রিকেটার খুব ভালো করে অবগত।

দল থেকে বাদ পড়ার পরে প্রতিটা ক্রিকেটারকে কঠোর অনুশীলনের পাশাপাশি মানসিক প্রস্তুতি সেই ভাবেই নিতে হয় যাতে আবার জাতীয় দলের হয়ে ক্রিকেট মাঠে ফিরে আসতে পারে। আমরা এখানে এমন ৩জন ভারতীয় ক্রিকেটারকে নিয়ে আলোচনা করবো যারা ভারতীয় দল থেকে বাদ পড়ার পরেও নাটকীয় ভাবে আবার দলে ফিরে এসেছেন।

হরভজন সিং
ভারতীয় ক্রিকেট তথা বিশ্ব ক্রিকেটে সফল অফ স্পিনারদের মধ্যে অন্যতম হলেন হরভজন সিং। প্রাক্তন এই ভারতীয় তারকা ক্রিকেটার ভারতীয় দলকে বহু ম্যাচ জেতানো বোলিং ইনিংস উপহার দিয়েছেন। ২০০৭ সাল থেকে তার কেরিয়ার গ্রাফ ক্রমশ নামতে থাকে যার ফল স্বরূপ ২০১১ সালে তিনি ভারতীয় দলের একদিবসীয় ফরমেট থেকে বাদ পড়েন। ঠিক এর পরের বছরে অর্থাৎ ২০১২সালে আইপিএল এ তার খারাপ পারফর্মেন্সের জন্য ২০১৩ সালে তিনি ভারতীয় টেস্ট টীম থেকেও বাদ পরে যান।

এই সময় তার জায়গাতে তরুণ রবিচন্দ্রন অশ্বিন ভারতীয় দলে জায়গা করে নেন। ২০১৪ এবং ২০১৫ সালে তার অসাধারন আইপিএল এর পারফর্মেন্সের জন্য তিনি আবার ভারতীয় টেস্ট দলে সুযোগ পান এবং ধীরে ধীরে একদিবসীয় ফরম্যাট এবং t20 ফরম্যাটেও ভারতীয় দলের হয়ে তিনি আবার মাঠে নামার সুযোগ পান। কিন্তু হরভজন সিং পরবর্তীতে সেই ভাবে পারফর্মেন্স না করতে পারার জন্য ভারতীয় দলের রাস্তা তার জন্য চিরাচরিত বন্ধ হয়ে যায়।

সৌরভ গাঙ্গুলী
প্রাক্তন সফল ভারতীয় অধিনায়ক তথা বর্তমান ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলী তার আগ্রাসী ক্রিকেট মনোভাবের জন্য সমগ্র ক্রিকেট বিশ্বে বহুল বিখ্যাত হয়ে আছেন। নাটকীয় প্ৰত্যাবর্তনের কথা বলতে গেলে সবাই আগেই সৌরভ গাঙ্গুলির কথা বলা উচিত যার প্ৰত্যাবর্তন সমগ্র ক্রিকেট বিশ্বের মন জয় করে নিয়েছিল। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে একদিবসীয় ফরম্যাটে অভিষেক করার পরেই তিনি দল থেকে বাদ পড়েন

আবার তৃতীয় ভারতীয় ক্রিকেটার হিসাবে ১৯৯৬সালে লর্ডসের মাঠে ঐতিহাসিক শতরান করে ভারতীয় দলে প্ৰত্যাবর্তন করেছিলেন। এর পরেই ২০০৫সালে কোচ চ্যাপেলের অধীনে তিনি অধিনায়কত্ব হারান এবং দল থেকে বাদ পড়েন। ঠিক এর পরের বছরেই তিনি সাউথ আফ্রিকা সফরে ভারতীয় দলের হয়ে ডাক পান এবং অসাধারণ পারফর্মেন্স করে দেখান। এর পর তিনি আবার একদিবসীয় ফরম্যাটেও ভারতীয় দলের হয়ে মাঠে ফিরে অসাধারন ৯৮রানের এক ইনিংস উপহার দিয়েছিলেন।

মহিন্দার অমরনাথ
প্রাক্তন ভারতীয় তারকা ক্রিকেটার মাহিন্দার অমরনাথ ১৯৬৯সালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ভারতীয় দলের হয়ে অভিষেক করেছিলেন কিন্তু অভিষেক ম্যাচের পরেই তিনি দল থেকে বাদ পড়েন। এর ঠিক দীর্ঘ্য ৭বছর পর ১৯৭৬সালে তিনি আবার নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে ভারতীয় দলের হয়ে মাঠে নামেন এবং মাঠে নেমেই অসাধারণ এক অলরাউনফ ইনিংস তিনি ক্রিকেট বিশ্বকে উপহার দিয়েছিলেন যার মধ্যে ব্যাট হাতে ৬৪রান এবং

বল হাতে ৭২রানে দিয়ে ৪উইকেট নিয়েছিলেন। ১৯৮৩সালে ভরতীয় দলের প্রথম বিশ্বকাপ জেতার মূল কান্ডারি ছিলেন মহিন্দার অমরনাথ।

[ad_2]

Leave a Reply