ADS বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন: [email protected]

৫ বছর পর কামব্যাক করতে পেরে নিজেকে ভাগ্যবান বলে দাবি করেছে এই ক্রিকেটার

৫ বছর পর কামব্যাক করতে পেরে নিজেকে ভাগ্যবান বলে দাবি করেছে এই ক্রিকেটার

[ad_1]

বিশ্বকাপ দলে থাকা ভারতের ক্রিকেটারদের অনেকেই ছন্দে নেই। সমর্থক ও ক্রিকেটবোদ্ধাদের একাংশ তাই স্যামসনকে একাদশে দেখতে চেয়েছিলেন। তা না হওয়ায় চলছে নির্বাচক প্যানেলের মুণ্ডপাত।

ব্যাট হাতে সাম্প্রতিক সময়ে দারুণ ছন্দে আছেন স্যাঞ্জু স্যামসন। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) রাজস্থান রয়্যালসকে কয়েক আসর ধরে নেতৃত্ব দেওয়া এই উইকেটরক্ষক ব্যাটার সম্প্রতি জাতীয় দলের হয়েও নজর কেড়েছেন। তবু তার জায়গা হয়নি জাতীয় দলে।

বিশ্বকাপ দলে থাকা ভারতের ক্রিকেটারদের অনেকেই ছন্দে নেই। সমর্থক ও ক্রিকেটবোদ্ধাদের একাংশ তাই স্যামসনকে একাদশে দেখতে চেয়েছিলেন। তা না হওয়ায় চলছে নির্বাচক প্যানেলের মুণ্ডপাত।

তবে স্যামসনের এ নিয়ে কোনো আক্ষেপ নেই। অনেকেই স্যামসনকে ভারতের স্কোয়াডে না দেখে যখন ব্যথিত, তখন খোদ স্যামসনই জানালেন তিনি দলে জায়গা না পেয়ে মোটেও হতাশ নন। বরং দেশের প্রতিনিধিত্ব করতে তার যে সতীর্থরা অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছেন, তাদের প্রতি জানালেন পূর্ণ আস্থা।

তিনি বলেন, ‘মিডিয়া ও সোশ্যাল মিডিয়ায় একটা বিষয় নিয়ে অনেক কথা হচ্ছে। বেশিরভাগ কথা হচ্ছে যে স্যাঞ্জু জাতীয় দলে কার জায়গা নেবে, রিশভ পান্ট নাকি লোকেশ রাহুল।

আমার এক্ষেত্রে বক্তব্য পরিষ্কার- দুজনেই আমার দলে খেলে। আমি যদি নিজের সতীর্থের সাথে প্রতিযোগিতা করি তাহলে আমি নিজের দেশকে ডুবাবো।’

দ্বিতীয় সারির দলে সুযোগ পেয়ে কয়দিন আগে বাজিমাত করা স্যামসন বিশ্বকাপ দলে সুযোগ না পেলেও তার কৃতজ্ঞতার শেষ নেই। তিনি বলেন, ‘আমি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করি কারণ আমি ৫ বছর পর কামব্যাক করতে পেরেছি।

ভারতীয় দল পাঁচ বছর আগে ১ নম্বরে ছিল এবং এখনও তাই আছে। বিশ্বকাপের ১৫ জনের দলে সুযোগ পাওয়া একটা বড় ব্যাপার। কিন্তু একই সময়ে নিজের ব্যাপারেও ভাবতে হবে এবং নিজের মনকে ঠিক রেখে ইতিবাচক চিন্তাভাবনা গুরুত্বপূর্ণ।’

[ad_2]

Leave a Reply