Alia Bhatt: আলিয়া ভাটের গোপন কথা

Alia Bhatt: আলিয়া ভাটের গোপন কথা - HoopHaap

মাত্র কয়েক মাস হল কাপুর পরিবারের বধূ হয়েছেন আলিয়া ভাট (Alia Bhatt)। খুলে ফেলেছেন নিজস্ব প্রযোজনা সংস্থা। দীর্ঘদিন লিভ-ইনে থাকার পর হঠাৎই রণবীর কাপুর (Ranbir Kapoor)-এর সাথে মাত্র চার পাক ঘোরার সিদ্ধান্ত আপাতত সকলের কাছেই পরিষ্কার। বিয়ের আগেই অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছিলেন আলিয়া। ফলে চটজলদি বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন তিনি রণবীর। যদিও সকলের সামনে প্রকৃত সত্য না এনে বিয়ের কারণ হিসাবে আলিয়ার দাদুর অসুস্থতার কথা বলা হয়েছিল।

তবে অনেকের মনেই প্রশ্ন বর্তমান যুগের মেয়ে আলিয়া এত তাড়াতাড়ি সংসারী হতে গেলেন কেন! যমুনাবাঈ নার্সি স্কুলের প্রাক্তন ছাত্রী আলিয়া কোনোদিন পড়াশোনায় ভালো ছিলেন না। খেলাধুলার প্রতি তাঁর আগ্রহ ছিল বেশি। ফলে বহুবার একই ক্লাসে থাকতে হয়েছে তাঁকে। মাত্র সতের বছর বয়সে স্কুলের পোশাকেই করণ জোহর (Karan Johar)-এর সামনে ‘স্টুডেন্ট অফ দ্য ইয়ার’-এর জন্য অডিশন দিয়েছিলেন আলিয়া। বেশ কয়েকজন স্টারকিডকে পিছনে ফেলে সিলেক্ট হয়েছিলেন তিনি। ‘স্টুডেন্ট অফ দ্য ইয়ার’-এর জন্য করণ, আলিয়াকে ওজন কমাতে বলেছিলেন। তবে বেশি ওজন ঝরাতে পারেননি আলিয়া। ‘স্টুডেন্ট অফ দ্য ইয়ার’ হিট করার পর স্কুল ছেড়ে দেন আলিয়া। টুয়েলভ অবধি পড়াশোনার ধৈর্য্য ছিল না তাঁর।

আলিয়ার মা সোনি রাজদান (Soni Razdan), মহেশ ভাট (Mahesh Bhatt)-এর দ্বিতীয় স্ত্রী। মহেশ তাঁর প্রথম স্ত্রী কিরণ (Kiran)-কে ডিভোর্স না দিয়ে মুসলমান ধর্ম গ্রহণ করে বিয়ে করেছিলেন সোনিকে। তবে মহেশের মা-ও কিন্তু মুসলমান মহিলা ছিলেন। ফলে আলিয়ার ধর্ম নিয়ে অনেকের মনেই প্রশ্ন রয়েছে। আপাতত আলিয়া বিবাহ সূত্রে হিন্দু ধর্মাবলম্বী। তবে তিনি সকল ধর্মে বিশ্বাসী।

দশম শ্রেণীতে পড়ার সময় আলিয়ার সাথে সম্পর্ক ছিল আলি দাদারকর (Ali Dadarkar)-এর। ‘স্টুডেন্ট অফ দ্য ইয়ার’ হিট করতেই আলির সাথে ব্রেক-আপ করেন আলিয়া। এরপর তাঁর সাথে সম্পর্ক ছিল সিদ্ধার্থ মালহোত্র (Siddharth Malhotra)-র। কিন্তু এগারো বছর বয়স থেকে আলিয়ার পছন্দ ছিল রণবীরকে। ফলে রণবীরের সাথে পরিচয়ের পর আলিয়া ব্রেক-আপ করেন সিদ্ধার্থের সাথে। এরপর লিভ-ইন শুরু করেছিলেন রণবীর ও আলিয়া। প্রকৃতপক্ষে, একজন স্টারকিড হয়ে অপর স্টারকিডকে বিয়ে করতে চেয়েছিলেন আলিয়া।

Leave a Reply